মেঘ খোলো চোখ খোলো

ভাষার ভাঙাচোরা হয়, বর্ণের উড়ান ধরা থাকে ছাঁচঘরে, আলো খেলে বেদনায়, বেদানার লালগুলো মিশে যায় রক্তকরবী দিনে, ভাষার আলাপে, কিংবা […]

আরো পড়ুন →

কৃষ্ণ সমাচার

।। হিমালয় জানা ।। মাটির তপ্ত সরা এই পৃথিবী নাভির কুয়োর মধ্যেডুবিয়েছিলাম কিন্তু তুলে আনলাম একটা পাকানো গিঁটখোলা দড়ি একটা […]

আরো পড়ুন →

এভাবে লুকিয়েছিলে তুমি

ভাষার ভাঙাচোরা হয়, বর্ণের উড়ান ধরা থাকে ছাঁচঘরে, আলো খেলে বেদনায়, বেদানার লালগুলো মিশে যায় রক্তকরবী দিনে, ভাষার আলাপে, কিংবা […]

আরো পড়ুন →

উপত্যকায় গুলির শব্দ হলো

।। টোকন ঠাকুর ।। মনে করো সেই পার্বত্য কবিতাটি আমি বাংলায় লিখছি… পাহাড়ি মেয়েটি ঝর্নার পাশে বসে খুব ভয়ে ভয়ে […]

আরো পড়ুন →

জনপদের ভাষা এসে

।। অনুভব আহমেদ ।। জনপদের ভাষা এসে আমাকে ভাসায়আমি কাঁদি, আমি হাসি,আমি দেখি মানুষ থেকে দূরে মানুষের দূরত্বে গাঢ় হয় […]

আরো পড়ুন →

নূতন স্বরে বাঙলা ভাষা

।। পাঁচ তরুণ কবির কবিতা ।। “আমি তো তোমারে নির্মাণ করি নাই,নির্মাণ করেছ বরং তুমিই আমারে।যে কারণে—তুমি খোঁজো না, তোমারে […]

আরো পড়ুন →

আমার তেমন কোনো বেদনা নাই আর

।। মুনিরা মেহেক।। আমার তেমন কোনো বেদনা নাই আরতুমি জানো— বিষাদ ফুরিয়ে যাচ্ছে প্রিয়তোমার মৃত মুখের ভিতর আমার মুখঅদৃশ্য হতে […]

আরো পড়ুন →

সমূহদ্বিধা নিয়ে

।। বায়েজিদ বোস্তামী ।। শর্করাহীন হয়তো ঘুমোবো খুব ভোরেআবার সকালে সেই পায়চারি, বারান্দায় ১ এমন দুপুর বয়ে যায় ভবে রুখোশুখো […]

আরো পড়ুন →

আমার দ্বারা কিস্যু হবে না ভেবে

।। অনন্যা বন্দ্যোপাধ্যায় ।। একটা অদৃশ্য তালায়-চাবিতেবন্ধ করে রাখিআমাদের সমস্ত যাতায়াত—স্মৃতির থকথকে গায়ে পর্দা লেপেকাগজের নৌকা বানাইভাসিয়ে দিই করলায়হয়তো তিস্তায় […]

আরো পড়ুন →